রিফাত হত্যা মামলায় ১১ কিশোর আসামির সাজা

বরগুনার বহুল আলোচিত শাহনেওয়াজ রিফাত শরীফকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে খুনের মামলায় ১১ কিশোর আসামিকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দিয়েছে আদালত। হত্যা মামলার অপ্রাপ্ত বয়স্ক ১৪ আসামির রায় ঘোষণা করা হয়েছে। রায়ে ৬ আসামির ১০ বছর, ৪ জনের ৫ ও একজনের ৩ বছর করে কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে। এছাড়া ৩ জনকে খালাস দিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার দুপুর বরগুনা জেলা ও দায়রা জজ মো. আছাদুজ্জামান এই রায় ঘোষণা করেন।

১০ বছর কারাদণ্ড হয়েছে যাদের- রাশিদুল হাসান রিশান ফরাজি (১৭), রাকিবুল হাসান রিফাত হাওলাদার (১৫), অলিউল্লাহ অলি (১৬), আবু আবদুল্লাহ রায়হান (১৬), মো. নাঈম (১৭) ও তানভির হোসেন (১৫)। ৫ বছর করে সাজা হয়েছে জয় চন্দ্র সরকার চন্দন (১৭), নাজমুল হাসান (১৪), রাকিবুল হাসান নিয়ামত (১৫) ও সাইয়েদ মারুফ বিল্লাহ ওরফে মহিবুল্লাহর (১৭)। প্রিন্স মোল্লা (১৫) নামের আরেক আসামির ৩ বছর কারাদণ্ড হয়েছে।

এছাড়া রায়ে খালাস পেয়েছেন মারুফ মল্লিক (১৭), রাতুল সিকদার জয় (১৪) ও আরিয়ান হোসেন শ্রাবণ (১৬)।

রায় ঘোষণার সময় আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিল। এদিন রায়কে কেন্দ্র করে আদালত পাড়ায় কড়া নিরাপত্তাবলয় তৈরি করে পুলিশ।

এর আগে এই মামলায় রিফাতের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিসহ ৬ আসামিকে মৃত্যুদণ্ড দেন বরগুনা জেলা ও দায়রা জজ মো. আছাদুজ্জামান।

গত বছরের ২৬ জুন বরগুনা সরকারি কলেজের সামনের সড়কে নয়ন বন্ড ও তার সহযোগীরা রিফাত শরীফকে ধারালো চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে। রিফাত শরীফের বাবা আবদুল হালিম দুলাল শরীফ ২৭ জুন বরগুনা থানায় নয়ন বন্ডকে প্রধান আসামি করে ১২ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন। ২ জুলাই পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নয়ন বন্ড নিহত হয়।

পরে ওই বাদী ৬ জুলাই বরগুনা থানায় আরও একটি আবেদন করেন। তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশ পরির্দশক হুমায়ূন কবির গত বছর ১ সেপ্টেম্বর দুটি ভাগে ২৪ আসামির বিরুদ্ধে বরগুনা সদর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট গাজী মো. সিরাজুল ইসলামের আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

এর মধ্যে অপ্রাপ্ত বয়স্ক ১৪ আসামির বিরুদ্ধে শিশু আদালতে ৫ অক্টোবর রাষ্ট্রপক্ষ যুক্তিতর্ক শুরু করেন। আসামিপক্ষ ১২ অক্টোবর যুক্তিতর্ক শেষ করেন। এরপর আবার রাষ্ট্রপক্ষ ১৪ অক্টোবর যুক্তি খণ্ডন করেন। ওই তারিখে বিচারক ২৭ অক্টোবর রায় ঘোষণার দিন ধার্য করেন।

রিফাত হত্যা ১১ আসামির সাজা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *